ক্ষুধা নিবারণ নাকি করোনা দমন?

0
123

করোনাভাইরাসের কারণে পুরো দেশজুড়ে অবরুদ্ধ পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এজন্য কর্মহীন হয়ে পড়েছেন অনেক মানুষ। তাদের কষ্টটা সবচেয়ে বেশি।

বিশেষ করে নিম্নআয়ের শ্রমজীবী মানুষদের আয়-রোজগার বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তারা মহাসংকটে পড়েছেন। এদিকে এমন পরিস্থিতিতে নিম্নমধ্যবিত্ত মানুষও নেমে যাচ্ছেন হতদরিদ্রের কাতারে। ঘরে খাবার নেই অথচ কাউকে বলতেও পারছেন না তারা। অন্যের কাছে সাহায্যও চাইতে পারছেন না।

বন্ধ হয়ে যাচ্ছে আয়ের উৎস। আবার শ্রমজীবীরাও রিকশা চালিয়ে কিংবা দৈনিক ভিত্তিতে কাজ করে আয় করতে পারছেন না। দেশের এই ক্রান্তিকালে সরকারের ত্রাণ তৎপরতার পাশাপাশি রাজধানীসহ দেশের হতদরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে এসেছেন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি।

অভিযোগ উঠছে, সমন্বয়হীনতার কারণে রাজধানীতে কোনো কোনো এলাকার মানুষ একাধিকবার ত্রাণ পেলেও অনেক এলাকায় সাহায্যই পৌঁছাচ্ছে না। তবে ত্রাণ সহায়তা পেয়ে কেউ কেউ একটু স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললেও অনেকেই আতঙ্কিত তীব্র খাদ্যসংকট নিয়ে। হয়তো অনেকেরই সঞ্চিত অর্থ শেষ হয়ে যাচ্ছে।

আমার ধারণা, বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার অর্ধেকের বেশি মানুষ বিপাকে পড়তে যাচ্ছে। অনাহারি মানুষ ক্ষুধার বিরুদ্ধে লড়বে নাকি করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়বে তা ভাববার বিষয়। দেশের মানুষ করোনাভাইরাসকে মোকাবিলা করে জয়ী হবে, এই প্রত্যাশা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here