কয়েকটি হাসপাতাল ঘুরে ছেলের মৃত্যুর পর বাবাও মারা গেলেন

0
351

‘জ্বরের কারণে ভর্তি না করায়’ কয়েকটি হাসপাতাল ঘুরে অবশেষে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান নারায়ণগঞ্জের এক যুবক। ছেলে মৃত্যুর খবর পেয়ে ঘণ্টাখানেক পর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় তার বাবার।

সোমবার সকালে সদর উপজেলার সরদারপাড়া এলাকায় রিমন সাউদ (২৭) মারা যান। এ খবর শোনার পর এক ঘণ্টা পর হৃদরোগে তার বাবা ইয়ার হোসেনের (৬০) মৃত্যু হয়।

নিহত ইয়ার হোসেন নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার ললাটি এলাকার এমআরবি নামের ইটভাঁটার মালিক।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি কামরুল ফারুক বলেন, ছেলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন এ খবর শোনার পর তার বাবা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান।

ওই যুবক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন না বলে জানান তিনি।

প্রয়াত ইয়ার হোসেনের জামাতা রানা ভূঁইয়া জানান, ভোররাতে তার শ্যালক রিমন সাউদ অসুস্থ হয়ে পড়লে স্থানীয় কয়েকটি হাসপাতালসহ ঢাকার বিভিন্ন হাসাপাতলে নিয়ে যাওয়া হয়।

“কিন্তু করোনার উপসর্গ জ্বর, ঠান্ডা, কাশি থাকার কারণে কোনো হাসপাতালে তাকে ভর্তি নেয়নি। অবশেষে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে ভোর ৬টার দিকে সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

“আমার শ্যালকের করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। সে করোনায় আক্রান্ত ছিল না। তার নিউমোনিয়া হয়েছে। অথচ বিভিন্ন হাসপাতালে গিয়েও তাকে ভর্তি করাতে পারিনি।

“বিনা চিকিৎসায় আমার শ্যালকের মৃত্যু হয়েছে।”

তিনি বলেন, একমাত্র ছেলের মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে বাবা ইয়ার হোসেন হৃদরোগে আক্রান্ত হন। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সকাল ৭টার দিকে তিনিও মারা যান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here