আরও ভালো করবে বাংলাদেশ, বিশ্বাস অধিনায়কের

0
38

আমরা কী করছি, পাকিস্তান সফরের এক পর্যায়ে নিজেদের মধ্যে আলোচনা করছিলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। যে মানের ক্রিকেট সাম্প্রতিক সময়ে দল খেলছে তাতে সন্তুষ্ট ছিলেন না তারা। ঘুরে দাঁড়াতে চেয়েছিলেন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে। ঠিক করে দিতে চেয়েছিলেন নিজেদের মানদণ্ড। সেটা হয়েছে। মাহমুদউল্লাহর চাওয়া, আসন্ন সিরিজগুলোতে এই মান ধরে রাখুক বাংলাদেশ।

স্রেফ দ্বিতীয় ওয়ানডেতে একটু লড়াই করেছিল জিম্বাবুয়ে। বাকি ম্যাচগুলোতে হয়নি কোনো ধরনের প্রতিদ্বন্দ্বিতা। সফরকারীদের বিপক্ষে যে ভীতিহীন ক্রিকেট খেলেছে বাংলাদেশ, অধিনায়ক চান সেটা ধরে রাখুক তার দল।

“আমার মনে হয়, ভালো ক্রিকেট খেলা আর দাপট দেখানো দুইটাই দরকার ছিল। … এটা আমাদের জন্য ঘুরে দাঁড়ানোর একটা সিরিজ ছিল। আমার মনে হয়, আমরা ফেভারিট ছিলাম প্রতিটা সংস্করণেই। সেই অনুযায়ী খেলাটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সেই অনুযায়ী মনোযোগী থাকাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল।”

“গ্রুপ হিসেবে আমরা অনেক বেশি ফোকাসড ছিলাম। প্রতিটি কাজ সবাই খুব পরিকল্পিতভাবে করেছে। যেকারণে আমরা এই সাফল্যটা পেয়েছি।”

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে ৯ উইকেটে জিতেছে বাংলাদেশ। এর আগে একমাত্র টেস্ট জেতে ইনিংস ব্যবধান। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করে জিম্বাবুয়েকে। এই সিরিজ থেকে নেওয়ার আছে অনেক কিছু।

সবার আগে ছেলেদের মনোভাবটা নেবো আমি। এরপর নেবো পারফরম্যান্স। আমার মনে হয়, সবার যে মানসিকতা ছিল, ক্ষুধা ছিল, সেটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। পাকিস্তানে আমরা বসেছিলাম; সেখানে আমরা বলছিলাম, ‘আমরা এমন কেন খেলছি। আমরা এর চেয়ে ভালো দল এবং এর চেয়ে ভালো পারফরম্যান্স আমরা দিতে পারব।’ কিছু ঘাটতি হয়তো ছিল।”

“এই সিরিজে আমাদের কাজের পরিধি অনেক বেশি ছিল। ভবিষ্যতে এই বিষয়গুলোতে, এই ব্যাপারগুলোতে আমাদের মনোযোগ দিতে হবে যে আমরা এই ধরনের দল, আমরা এমন দাপুটে ক্রিকেট খেলতে পারি।”

ভালো খেলার ধারাটা গুরুত্ব পাচ্ছে মাহমুদউল্লাহর কাছে। বড় দলের বিপক্ষে খেলা হলে যেন বাংলাদেশ দিশা হারিয়ে না ফেলে সেটাই চাওয়া তার।

“আজ ফল হয়েছে, পরের সিরিজে হয়তো হবে না। তবে বিশ্বাসটা আমাদের ধরে রাখতে হবে। যদি এখান থেকে আমরা সরে যাই তাহলে আবার এটা গড়ে তোলা বেশ কঠিন হবে। বড় দলগুলোর বিপক্ষে যেন ধারাবাহিকভাবে ভালো ক্রিকেট খেলে যেতে পারি।”

“আশা করি, আমার দল এর চেয়েও ভালো করবে। এখানে যেটা করেছি, এটাই আমাদের মান। এর চেয়ে নিচে নামা আমাদের উচিত হবে না। নিজেদের মান অনুযায়ী পারফরম করা সব সময়ই চ্যালেঞ্জ।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here