পাবনায় মার্কেট বন্ধ করা নিয়ে পুলিশ-ব্যবসায়ী হাতাহাতি

0
198

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঝুঁকির মধ্যে পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলায় দোকান বন্ধ করা নিয়ে পুলিশের সঙ্গে ব্যবসায়ীদের হাতাহাতি হয়েছে।

সোমবার সাহাপুর নতুনহাট মোড়ে হাসেম সুপার মার্কেট এলাকায় এই ঘটনা ঘটে বলে ঈশ্বরদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবির জানান।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস মহামারীতে সংক্রমণ ঝুঁকি এড়াতে দেশে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে সরকার সবকিছু বন্ধ রাখান নির্দেশনা রয়েছে। এরমধ্যে জরুরি সেবার দোকানপাট ছাড়া সব দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশনা রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী জানান, হাসেম সুপার মার্কেটে প্রসাধন, জুতাসহ কয়েকটি সামগ্রীর দোকান খোলা দেখে ঈশ্বরদী থানার কয়েকজন পুলিশ সদস্য কারণ জানতে চান দোকানদারদের কাছে। এ সময় পুলিশের সঙ্গে দোকানদারদের কথা কাটাকাটি হয়। 

পুলিশকে গালাগাল করায় শান্ত নামের এক দোকানদারকে ধরে গাড়িতে ওঠানোর চেষ্টা করলে অন্য ব্যবসায়ীরা ধস্তাধস্তি ও হাতাহাতি করে শান্তকে ছিনিয়ে নেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।

এ সময় ব্যবসায়ীরা পুলিশকে ধাওয়া দিলে তারা দৌড়ে গাড়িতে উঠে আশ্রয় নেন এবং ব্যবসায়ীরা পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে বলেও জানান স্থানীয়রা।

খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবির ঈশ্বরদী থানার পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

ঘটনাস্থলে যাওয়া এএসআই খায়রুল ইসলাম বলেন, “আমরা ভালোভাবে দোকান বন্ধ করতে বলেছি। কিন্তু শান্ত নামের এক দোকানদার আমাদের গালাগাল করেন। তাকে পুলিশের গাড়িতে তোলার কথা বলায় অন্য ব্যবসায়ীরা আমাদের উপরে চড়াও হন।”

এ বিষয়ে ঈশ্বরদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবির বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে সবার সঙ্গে কথা বলে পরিবেশ ও পরিস্থিতি শান্ত করা হয়েছে। তবে যেহেতু পুলিশ ব্যক্তিগত কাজে সেখানে যায়নি; সরকারি কাজ করতে গিয়ে এই ধরনের ঘটনা ঘটেছে, তদন্ত সাপেক্ষে আইনত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ ঘটনায় মামলা করার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন বলেও জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here