জশুয়া সিলভার সেঞ্চুরি, গ্যাব্রিয়েলের দুর্দান্ত বোলিং

0
282

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের মূল স্কোয়াডে নেই জশুয়া ডি সিলভা কিংবা শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। করোনা সতর্কতার কারণে যে রিজার্ভ স্কোয়াডকে রাখা হয়েছে সঙ্গে, তারই অংশ এ দুই ক্রিকেটার। কিন্তু মূল সিরিজ শুরুর আগে শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে আলো ছড়ালেন দুজনই। ফলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের নির্বাচকদের জন্য কাজটা বেশ কঠিনই হলো বটে।

নিজেদের স্কোয়াডের খেলোয়াড়দের মধ্যকার চারদিনের প্রস্তুতি ম্যাচে ব্যাট হাতে অপরাজিত সেঞ্চুরি করেছেন জশুয়া সিলভা। একইদিনে বল হাতে নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ দিয়েছেন শ্যানন গ্যাব্রিয়েল। যে কারণে বৃষ্টিবিঘ্নিত প্রস্তুতি ম্যাচটিকেও বাড়তি গুরুত্ব দিতেই হচ্ছে ক্যারিবীয়দের।

ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে গত ২৯ জুন (সোমবার) শুরু হওয়ার কথা ছিল চারদিনের প্রস্তুতি ম্যাচটি। জেসন হোল্ডার ও ক্রেইগ ব্রাথওয়েটের নেতৃত্বে দুই দলে ভাগ হয়ে খেলতে নেমেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের খেলোয়াড়রা। তবে বৃষ্টির কারণে এক বলও খেলা হয়নি প্রথম দিন।

দ্বিতীয় দিন আগে ব্যাট করতে নামে হোল্ডার একাদশ। এদিনও আসে বৃষ্টির বাগড়া। তবে খেলা হওয়া ৩৪ ওভারে হোল্ডার একাদশকে বেঁধে রাখে ব্রাথওয়েট একাদশ। জশুয়া সিলভা ৬০ রানে অপরাজিত থাকলেও দলের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৫ উইকেটে ১২০ রান। ভালো বোলিং করেন চেমার হোল্ডার।

তবে পরদিন অর্থাৎ বুধবার হোল্ডার একাদশকে এগিয়ে দেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান জশুয়া সিলভা। নিচের সারির ব্যাটসম্যানদের নিয়ে লড়াই করে পূরণ করেন নিজের সেঞ্চুরি। শেষপর্যন্ত অপরাজিত থেকে যান ১৩৩ রানে। ব্যক্তিগত ৭৫ রানের সময় ওশানে থমাসের দ্রুতগতির এক ডেলিভারি তার আঙুলে লাগলেও দমে যাননি।

প্রথমে রেয়মন রেইফার (২৫) ও পরে আলঝারি জোসেফকে (৩৮) সঙ্গে নিয়ে এগিয়ে যান ডানহাতি ওপেনার জশুয়া। হোল্ডার একাদশ অলআউট হয় ২৭২ রানে। তবে তিনি ২৪৮ বলে ১৩৩ রান করে নির্বাচকদের এক বার্তাই দিয়ে রেখেছেন। ইনিংসের শুরু থেকে শেষপর্যন্ত অপরাজিত থেকে টেস্ট টেম্পারমেন্টেরও পরিচয় দিয়েছেন এ ২২ বছর বয়সী তরুণ।

তৃতীয় দিনের শেষভাগে ব্রাথওয়েট একাদশের ব্যাটসম্যানদের সামনে আতঙ্ক হয়ে আসেন গ্যাব্রিয়েল। তার তোপে মাত্র ৯ রানেই ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলে ব্রাথওয়েট একাদশ। দিন শেষ তাদের সংগ্রহ ৭ উইকেটে ১১২ রান, কাইল মায়েরস অপরাজিত রয়েছেন ৪০ রানে। গ্যাব্রিয়েল ৩৪ রান খরচায় নিয়েছেন ৩ উইকেট। আজ (বৃহস্পতিবার) ম্যাচের শেষদিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here