করোনার লাগাম টানতে কঠোর ব্যবস্থা নিচ্ছে অস্ট্রেলিয়াg

0
356

করোনাভাইরাস সংক্রমণ দ্রুত বাড়তে থাকায় অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ দুই রাজ্য ভিক্টোরিয়া এবং নিউ সাউথ ওয়েলসের সীমান্ত বন্ধ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। গত একশ বছরের মধ্যে এই দুই রাজ্যের মধ্যে এই প্রথম সীমান্ত বন্ধ হচ্ছে। সিডনি এবং মেলবোর্নের বিমান রুট বিশ্বের ব্যস্ততম রুটগুলোর অন্যতম।

এমনকি অস্ট্রেলিয়ায় ভাইরাস সংক্রমণ যখন তুঙ্গে ছিল তখনও ভিক্টোরিয়া এবং নিউ সাউথ ওয়েলসের মধ্যে অবাধ যাতায়াত ছিল। কিন্তু গত দুই সপ্তাহে ভিক্টোরিয়ার রাজধানী শহর মেলবোর্নে শতশত নতুন কোভিড রোগী শনাক্ত হয়েছে।

বিবিসি বলছে, মেলবোর্নে নতুন সংক্রমণের সংখ্যা পুরো অস্ট্রেলিয়ার ৯৫ শতাংশ। সোমবার ভিক্টোরিয়ায় নতুন ১২৭ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে। করোনাভাইরাস মহামারি শুরুর পর এই রাজ্যে একদিনে এত রোগী কখনই শনাক্ত হয়নি।

মেলবোর্নের অনেকগুলো বহুতল আবাসিক ভবন পুরোপুরি লকডাউন করা হয়েছে। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাত ১২টা থেকে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হবে। শুধু বিশেষ পারমিটধারীরা এ দুই রাজ্যের মধ্যে যাতায়াত করতে পারবেন।

করোনার প্রকোপ নিয়ন্ত্রণে সরকারের নেয়া সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে সামরিক বাহিনীর কর্মকর্তা এবং পুলিশ সদস্যরা সীমান্তে মোতায়েন থাকব। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন বলছে, সীমান্ত বন্ধ হলেও খুব অল্প সংখ্যক মানুষ দুই রাজ্যে যাতায়াত করতে পারবেন।

জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য বলছে, ভিক্টোরিয়া প্রদেশে এখন পর্যন্ত ২ হাজার ৬৬৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং মারা গেছেন ২২ জন। যদিও পুরো অস্ট্রেলিয়াজুড়ে করোনায় আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা সাড়ে ৮ হাজারের বেশি এবং প্রাণ গেছে ১০৬ জনের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here