গাভাস্কারের ১০ হাজার এ যুগে খেললে ১৫-১৬ হাজার হতো : ইনজামাম

0
273

ভারতের সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যান কে-শচিন টেন্ডুলকার নাকি বিরাট কোহলি? অনেকেই মনে করেন, শচিনের সব রেকর্ড ভেঙে ফেলবেন কোহলি। যদিও তাতে ভারতীয় অধিনায়ক লিটল মাস্টারের ওপরে চলে যাবেন, এটা মানেন না অনেকেই।

কেননা আধুনিক ক্রিকেট অনেক বদলে গেছে। ব্যাটসম্যান বান্ধব পিচ তৈরি হচ্ছে। বোলারদেরও আগের মতো ধার নেই। সে যুগের ব্যাটসম্যানদের সঙ্গে পরিসংখ্যান দিয়ে এখনের যুগের কাউকে তুলনা করা আসলে কঠিন।

পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ইনজামাম উল হক যেমন টানলেন সুনিল গাভাস্কারের প্রসঙ্গ। ভারতের প্রথম লিটল মাস্টার যখন টেস্টে ১০ হাজার রান করেন, তখন এই ক্লাবে তিনিই ছিলেন একমাত্র ব্যাটসম্যান। ইনজামাম মনে করেন, এখনকার যুগে খেললে গাভাস্কারের রান ১৫-১৬ হাজারের কম হতো না।

ইনজামাম এক ইউটিউব চ্যানেলে গাভাস্কারের প্রশংসা করে বলেন, ‘তার সময়ে কিংবা আগে অনেক গ্রেট খেলোয়াড় ছিল। জাভেদ মিঁয়াদাদ, ভিভিয়ান রিচার্ডস, গ্যারি সোবার্স এবং ডন ব্র্যাডমান-তারা কেউই কিন্তু এই মাইলফলক ছুঁতে পারেননি। এমনকি এখনকার দিনে যে এত এত টেস্ট খেলা হচ্ছে, তার মধ্যেও খুব কম খেলোয়াড়ই এমন মাইলফলক গড়তে পারছেন।’

পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক যোগ করেন, ‘যদি আপনি আমাকে জিজ্ঞেস করেন, তবে বলব-সুনিলের ওই সময়ে করা ১০ হাজার রান, এখনকার দিনের ১৫-১৬ হাজারের সমান। তার চেয়ে বেশিই হতো, কম হতো না কোনোমতে।’

৭১ বছর বয়সী গাভাস্কার খেলোয়াড়ি জীবনে ভারতের হয়ে ১২৫টি টেস্ট ও ১০৮টি ওয়ানডেতে অংশ নিয়েছেন। টেস্টে তার রান ১০ হাজার ১২২, ওয়ানডেতে ৩ হাজার ৯২ রান।

ইনজামাম বলেন, ‘যদি আপনার ফর্ম থাকে, তবে এক মৌসুমে এক থেকে দেড় হাজার রান করা সম্ভব। কিন্তু সুনিল যখন ব্যাটিং করতেন, তখন এমন অবস্থা ছিল না। এখনকার দিনে পুরোপুরি ব্যাটিং উইকেট বানানো হয়, ফলে ধারাবাহিকভাবে রান করা যায়। আইসিসিও চায় ব্যাটসম্যানরা রান করুক, যাতে দর্শকরা বিনোদন পায়। কিন্তু আগের উইকেটগুলো ব্যাটিংয়ের জন্য এত সহজ ছিল না, বিশেষ করে উপমহাদেশের বাইরে খেলতে গেলে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here